Monday, 18 May 2020

শপিং না করা এবং ঘরে থাকার আহ্বান।


পুলিশ- দাঁড়ান,কোথায় গিয়েছিলেন?
মহিলা- শপিং করতে,
পুলিশ- আপনাদের করোনার ভয় নাই?
নারী -- আছে, তবুও শপিং তো করতে হবে।
পুলিশ- স্বামী কোথায় থাকে?
মহিলা- বিদেশে!
পুলিশ- ওনি কেমন আছেন?
মহিলা- ভালো নাই!
পুলিশ- কেন?
মহিলা- ঘর থেকে বের হতে পারতেছেনা,টিক টাক খেতে পারতেছেনা,নাই কাজ নাই ঘুম।সব সময় আতংকের মধ্য আছে।

পুলিশ- ও তাই নাকি! আচ্ছা ধরেন আপনার স্বামীর করোনা পাইছে এখন বলেন আপনার কাছে কোনটা বেশি প্রয়োজন আপনার স্বামী নাকি জায়নামাজ এর স্থান যেখানে আল্লাহ কাছে ফরিয়াদ করবেন আপনার স্বামীর জন্য। নাকি শপিং মল?

মহিলা- স্বামী আর দোয়া দুই টা প্রয়োজন,

শপিং মল না।

পুলিশ- তাহলে সব কিছু জানার সত্ত্বে ও আইন অমান্য করতেছেন কেন..! আপনি কি জানেন আপনার স্বামী কত টেনশনে আছেন। নিজের থেকে ও চিন্তা বেশি করে আপনাদের জন্য। আর আপনি আছেন শপিং নিয়ে। একটি বছর ঈদ না করলে হয়না? সন্তান যদি মারা যায় আর একটা সন্তান আল্লাহ পাক আপনাকে দেবে তার গেরেন্টি কি? কিন্তু একটা ঈদ চলে গেলে তো আরো হাজার ঈদ পাওয়ার সম্ভাবনা আছে।তাহলে কেন এসব?

আপনি কি জানেন, আপনি কত টা অন্যায় করতেছেন,,আপনার প্রতিবেশি টিক ভাবে খেতে পারতেছেনা। তার খেয়াল আপনার নাই আর আপনি আছেন নিজের চিন্তা। লজ্জা করেনা আপনাদের! আপনার টাকা আছে বিধায় আপনি আপনার সন্তান কে কাপড় কিনে দিচ্ছেন। কিন্তু আপনার প্রতিবেশি তো তা পারতেছেনা।

কাল যখন তার সন্তান শুনবে আপনার ছেলে কাপড় কিনছে ঈদের জন্য, তখন অই গরিব ঘরের সন্তান রা তার দরিদ্র বাবার কাছে বায়না ধরবে কাপড় কিনার জন্য।তখন অই ব্যক্তির অবস্থা টা কি হবে একটি বার ভেবে দেখছেন আপনি?



মহিলা - আমতা আমতা করে। চুপ হয়ে রইল।
এই হল বর্তমান অবস্থা।

শেয়ার করুন

0 Please Share a Your Opinion.: