Saturday, 13 June 2020

ঢাকা-টাঙ্গাইল হাইওয়েতে ড্রেন নির্মাণ।চলছে অনিয়ম অভিযোগ এলাকাবাসির।

ঢাকা-টাঙ্গাইল মহাসড়কের টাঙ্গাইলের মির্জাপুর পুরাতন বাসস্ট্যান্ড এলাকার জোহরবাড়ি মোড় থেকে উপজেলা পরিষদ পর্যন্ত ড্রেন ফুটপাত এবং বাসস্ট্যান্ড নির্মাণ কাজে অনিয়মের অভিযোগ উঠেছে।

৪ কোটি ৬০ লাখ টাকার কাজে নিম্ন মানের ইট ও অন্যান্য সরঞ্জামাদি ব্যবহারের মাধ্যমে মহাসড়ক ও ড্রেন ফুটপাত নির্মাণে অনিয়ম করায় ক্ষোপ প্রকাশ করেছে এলাকাবাসী।

জানা গেছে, হক এন্ড ব্রাদার্স নামক ঠিকাদারি প্রতিষ্ঠান এই কাজটি শুরুর পর থেকেই নিম্ন মানের ইট ব্যবহার করে জাতীয় মহাসড়কের প্রশস্থকরণ ও ড্রেন ফুটপাত এবং বাসস্ট্যান্ড নির্মাণ করে আসছিলেন। গতকাল শুক্রবার (১২ ই জুন) এলাকাবাসীর চোখে নিম্ন মানের ইট ধরা পড়লে তারা সঙ্গে সঙ্গেই ঠিকাদারি প্রতিষ্ঠানের সাথে কথা বলেন। তবে ঠিকাদারি প্রতিষ্ঠান নিম্ন ইট ব্যবহার করছেন না জানিয়ে সেখান থেকে দ্রুত সরে যান।

“গত ডিসেম্বর থেকে শুরু হওয়া মির্জাপুর শহর অংশ (এন-৪০৩) জাতীয় মহাসড়ক ফুটপাতসহ প্রশস্থকরণ চলমাণ কাজেও ব্যাপক দুর্নীতির অভিযোগ তুলেছেন এলাকাবাসী। বলেন, মহাসড়কের কাজেও একইভাবে নিম্ন মানের ইট, বালির পরিবর্তে ভিটিবালি ও মাটি ব্যবহার করে কাজের গুণগতমান ঠিক না থাকায় কাজ শেষ না হওয়ার পূর্বেই চলমান কাজের ৭ মাসের মাথায় মহাসড়কের বিভিন্নস্থান দেবে গেছে। ক্ষুব্ধ এলাকাবাসী ঠিকাদারি প্রতিষ্ঠান ও সংশ্লিষ্টদের বিরুদ্ধে বিভাগীয় ব্যবস্থা গ্রহণেরও দাবি জানান”।

এ ব্যাপারে মুঠোফোনে হক এন্ড ব্রাদার্স ঠিকাদারি প্রতিষ্ঠানের প্রোঃ মনোজ খন্দকারের কাছে জানতে চাইলে তিনি বলেন, এই কাজে কোনো অনিয়ম হয়নি।

এ বিষয়ে টাঙ্গাইল সড়ক বিভাগের উপ-বিভাগীয় প্রকৌশলী ইমরান ফারহান ঘটনার সত্যতা স্বীকার করে বলেন, আমরা ইটগুলো সরিয়ে দিয়ে ভালো ইট আনতে বলেছি। দুটি প্যাকেজে যেসকল জায়গায় সমস্যা রয়েছে সেগুলো ঠিক করে দেয়া হবে।


শেয়ার করুন

0 Please Share a Your Opinion.: