Sunday, 26 July 2020

ময়মনসিংহে ভালুকায় থানায় দিনেদুপুরে সিনেম্যাটিক স্টাইলে দৌড়িয়ে ধরে ধর্ষণের চেষ্টা সঠিক বিচার পায়নি মেয়েটি।

ভালুকায় দিনেদুপুরে সিনেম্যাটিক স্টাইলে দৌড়িয়ে ধরে ধর্ষণের চেষ্টা সঠিক বিচার পায়নি মেয়েটি।
ভালুকা উপজেলার ৯নং কাচিনা ইউনিয়নে ৬নং ওয়ার্ড তালাব গ্রামে কল্পনা আক্তারের মেয়ে মোছাঃ মীম(১৮) কে একই গ্রামের মোঃ হাবুল্লার ছেলে মাফিজুল(৩০) অনেক যাবত বিরক্ত করে আসছিল এবং কুপ্রস্তাব দিচ্ছিল।

২৫ জুলাই শনিবার মেয়েটিকে একা পেয়ে মাফিজুল ধর্ষণের চেষ্টা করে। একপর্যায়ে মেয়েটি ধস্তাধস্তি করে পালিয়ে যেতে চাইলে মাফিজুল মেয়েটির পিছনে দাওয়া করে এবং এঘটনা এলাকাবাসী সকলেই দেখে যে মাফিজুল দিনেদুপুরে মেয়েটিকে দৌড়াচ্ছে।

অতঃপর মেয়ে এবং মেয়ের পরিবার স্থানীয় জনপ্রতিনিধি ও নেতাবর্গের কাছে বিচার চাইলে তারা মাফিজুলকে ডেকে এনে ঘটনার সত্যতা প্রমাণ হলে মাফিজুলকে শাসন ও সতর্ক করে মেয়ের কাছে ক্ষমা চায়িয়ে বিচার সমাপ্ত করে।

একটা মেয়েকে দিনেদুপুরে দৌড়ায় ধরে ধর্ষণ করতে চাইল আর সেই ধর্ষণ বা ধর্ষণের চেষ্টার বিচার কি ক্ষমা চাওয়া???

মাফিজুল মেয়েটিকে ধর্ষণের চেষ্টা করেছিল যদি মেয়েটি না পালাতে পারত তবে হয়তো মেয়েটি আজ ধর্ষিতা হত। ভবিষ্যতে যদি মাফিজুল আবারো ধর্ষণের চেষ্টা করে ধর্ষণ করে তবে এর ধায়বার কে নিবে??? তাছাড়া ধর্ষণ বা ধর্ষণের চেষ্টা এবং নারী নির্যাতনের বিচার স্থানীয় সরকারের করার কোন এখতিয়ার নেই।

দেশে যদি ধর্ষণ ও নারী নির্যাতনের সুষ্ঠু ও সঠিক বিচার হত তবে হয়তো আজ মীমকে এমন ঘটনার সম্মুখীন হতে হত না।

উপজেলা প্রশাসনের দৃষ্টি আকর্ষণ করছি তদন্ত সাপেক্ষে অসহায় মেয়েটিকে সুষ্ঠু বিচার পায়িয়ে দেওয়া হউক নতুবা হয়তো আক্রোশের শিকার হয়ে মাফিজুল ভবিষ্যতে আবারো ক্ষতি করতে পারে।

শেয়ার করুন

0 Please Share a Your Opinion.: