Saturday, 18 July 2020

মাদকদ্রব্য বহন করায় সিঙ্গাপুর পুলিশ ৫ জনকে গ্রেফতার করেছে

বুধবার ১৫ জুলাই মাদকের সন্দেহজনক অপরাধে ৩১ থেকে ৪৫ বছর বয়সের মধ্যে পাঁচ জন সিঙ্গাপুরীয়কে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ।


উদ্ধারকৃত দ্রব্যের মধ্যে ৪ জি এক্সট্যাসি পাউডার, ২৩৬ পিস এক্সট্যাসি ট্যাবলেট, ১৩ গ্রাম কেটামিন, ২টি এরিমিন -5 ট্যাবলেট, প্রায় ৩৮৬ গ্রাম বরফ এবং তিন বোতল তরল বোলে গামা-হাইড্রোক্সিবিউরেট (জিএইচবি) রয়েছে বলে সন্দেহ করা হয়েছে।

কেন্দ্রীয় মাদকদ্রব্য ব্যুরো (সিএনবি) বৃহস্পতিবার এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে বলেছে যে আটককৃত দ্রব্যের মূল্য ৫৮ হাজার সিঙ্গাপুর ডলারের ও বেশি বলে অনুমান করা হচ্ছে। এছাড়াও সিঙ্গাপুরের একাধিক স্থানে অভিযানের সময় পুলিশ ৫৮ হাজার ৩শ ৬ ডলার নগদও উদ্ধার করেছে।

বুধবার সকালে যিশুন অ্যাভিনিউ ৪ এর কাছে ৪৫ বছর বয়সী এক ব্যক্তির বাসায় অভিযান চালায়। উক্ত ব্যক্তিকে মাদক পাচারের অভিযোগে গ্রেপ্তার করা হয়। একই ইউনিটে সন্দেহভাজন মাদক সেবনের জন্য ৩৮ বছর বয়সী এক ব্যক্তিকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে। পরে পুলিশ মহিলার বাসা থেকে ২৮ হাজার ১শত পঞ্চাশ সিঙ্গাপুর ডলার উদ্ধার করে।

পরে ৩৮ বছর বয়সী ঐ ব্যক্তিকে কুইন স্ট্রিটে তার বাসায় নিয়ে যেখানে সিএনবি কর্মকর্তারা প্রায় এক প্যাকেট উদ্ধার করেন যার মধ্যে প্রায় ৫.৫ গ্রাম বরফ, অন্যান্য মাদকদ্রব্য এবং এসএর ২৮,১৫০ টাকা নগদ ছিল।

পুলিশ বুয়াংকক ক্রিসেন্টের কাছে ৩৭ বছর বয়সী একজন মহিলাকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে। গ্রেপ্তারের পর মহিলাকে তার বাসায় নিয়ে তল্লাশি চালিয়ে সেখানে প্যারাফেরানিয়ালিয়াসহ ছয়টি ড্রাগের প্যাকেট জব্দ করা হয়েছে। 

পুলিশ অভিযান চালিয়ে ঐ ব্যক্তির বাসা থেকে অবৈধ ঔষধসহ নগদ ৩০ হাজার ১শত ৫৬টাকা উদ্ধার করে। এবং মহিলার বাসায় অবস্থিত ৩৪ বছর বয়েসী একজন পুরুষ ও ৩১ বছর বয়েসী একজন মহিলাকে আ’টক করে।

পুলিশ কর্মকর্তারা উদ্ধার করা ঔষধ বাজেয়াপ্ত করেছে। তবে অনুমান করছে বাজেয়াপ্ত ঔষধ এক সপ্তাহের মধ্যে প্রায় ২শত ২০ জন ব্যক্তির কাছে তারা বিক্রি করার জন্য প্রস্তুতি নিচ্ছিল। আটক হওয়া সবার বিরুদ্ধে মাদকদ্রব্য আইনে তদন্ত চলছে।













শেয়ার করুন

0 Please Share a Your Opinion.: