Thursday, 20 August 2020

মালয়েশিয়া পুলিশ রায়হানের বিরুদ্ধে কোনো অভিযোগ আনতে পারেনি

আল জাজিরায় সাক্ষাৎকার দেয়ায় মালয়েশিয়ায় গ্রেপ্তার বাংলাদেশি তরুণ রায়হান কবিরকে সকল অভিযোগ থেকে অব্যাহতি দিয়েছে দেশটির পুলিশ। দেশে ফিরতে এখন তার আর কোনো বাধা নেই।
বুধবার (১৯ আগস্ট) রায়হান কবিরের আইনজীবীরা সাংবাদিকদের সঙ্গে আলাপকালে এই তথ্য নিশ্চিত করেছেন

জানা গেছে, মালয়েশিয়ার পুলিশ রায়হান কবিরের বিরুদ্ধে কোনো অভিযোগ গঠন করেনি। তাকে শিগগিরই দেশে ফেরত পাঠানো হবে।বাংলাদেশি মো. রায়হান কবিরের দুই আইনজীবীকে সুমিতা শাথিন্নি ও সি সেলভরাজা জানান, কোভিড -১৯ এর স্ক্রিনিংয়ের ফলাফল ভালো হওয়ার পরে ফ্লাইটের টিকিট পাওয়া গেলে তাকে বাড়ি পাঠানো হবে।
ইমিগ্ৰেশন বিভাগের পক্ষ থেকে আর কোনো অভিযোগ আনা হবে না।

এর আগে গত ৫ আগস্ট মালয়েশিয়ার ইমিগ্রেশন বিভাগের মহাপরিচালক খায়রুল দিজাইমি দাউদ সংবাদ সম্মেলনে বলেছিলেন, মালয়েশিয়া থেকে বাংলাদেশের পরবর্তী ফ্লাইট যাবে ৩১ আগস্ট। সেই ফ্লাইটে তাকে পাঠানো হবে। রায়হান আর মালয়েশিয়া যেতে পারবেন না। কারণ তাকে কালো তালিকাভুক্ত করা হবে।

প্রসঙ্গত, মালয়েশিয়ায় বসবাসরত অভিবাসীদের প্রতি দেশটির আইনশৃঙ্খলা বাহিনী কর্তৃক চলতি লকডাউনে বৈষম্যমূলক ও বর্ণবাদী আচরণ করা হয়েছে বলে  লকড আপ ইন মালয়েশিয়াস লকডাউন শিরোনামে ২৫ মিনিটের একটি ডকুমেন্টারি কয়েক সপ্তাহ আগে আল-জাজিরা টেলিভিশনে প্রকাশিত হলে ব্যাপক তোলপাড় শুরু হয় মালয়েশিয়া জুড়ে। বসবাসরত অভিবাসীদের প্রতি দেশটির আইনশৃঙ্খলা বাহিনী কর্তৃক চলতি লকডাউনে বৈষম্যমূলক ও বর্ণবাদী আচরণ করা হয়েছে বলে একটি সাক্ষাৎকার দেয় রায়হান।

এরপর পরই রায়হান কবিরকে গ্রেপ্তার করতে অভিবাসন আইনের ১৯৫৯/৬৩ ধারায় তার বিরুদ্ধে তদন্তের সহযোগিতা করার জন্য তাকে গ্রেপ্তারের জন্য জনসাধারণের সহযোগিতা চাওয়া হয়। তার কিছু দিন পর ২৪ জুলাই রাজধানীর জালান পাহাংয়ের একটি কনডোমোনিয়াম থেকে গোপন সংবাদের ভিত্তিতে রায়হান কবিরকে গ্রেপ্তার করা হয়।

১৪ দিন জিজ্ঞাসাবাদের পর ৬ আগস্ট পুলিশ তাকে আদালতে হাজির করে। পুলিশ ১৪ দিনের রিমান্ড চাইলে আদালত ১৩ দিন মঞ্জুর করেন। বর্তমানে রায়হান কবির অভিবাসন বিভাগের হেফাজতে রয়েছে বলে জানা গেছে।


শেয়ার করুন

0 Please Share a Your Opinion.: