Tuesday, 11 August 2020

মেজর সিনহা হত‍্যা মামলায় পুলিশের করা ময়নাতদন্ত প্রতিবেদনের অমিল

অবসরপ্রাপ্ত মেজর সিনহা নিহতের ঘটনায় পুলিশের করা সুরতহাল ও ময়নাতদন্ত প্রতিবেদনের অমিল রয়েছে। তবে মামলার আইনজীবী দাবি করছেন ময়নাতদন্ত প্রতিবেদনের মাধ্যমে তা দূর হবে। এদিকে, সুষ্ঠু তদন্তের বিষয়ে আশাবাদী সিনহার সহযোগী শিপ্রা আর সিফাত। জামিনে কারাগার থেকে মুক্তির পর সোমবার রাতে কক্সবাজারে গণমাধ্যমের মুখোমুখি হয়ে এ আশাবাদ জানান তারা।

৩১ জুলাই টেকনাফের শামলাপুর চেকপোস্টে পুলিশের গুলিতে নিহত হন অবসরপ্রাপ্ত মেজর সিনহা রাশেদ। তার দুই সহযোগী সাহেদুল ইসলাম সিফাত ও শিপ্রা দেবনাথকে গ্রেপ্তার করে পুলিশ।

রোববার কক্সবাজারের আদালত থেকে জামিন পান শিপ্রা দেবনাথ এবং সোমবার মঞ্জুর হয় শাহেদুল ইসলাম সিফাতের জামিন। রাতে কক্সবাজারে গণমাধ্যমে সিনহা হত্যাকাণ্ডের সুষ্ঠু তদন্তের বিষয়ে আশাবাদ ব্যক্ত করেন শিপ্রা ও সিফাত।

এদিকে, সিনহার ময়নাতদন্ত ও পুলিশের করা সুরতহাল প্রতিবেদনের অসামঞ্জস্যতা দেখা দিয়েছে। তার শরীরের ছয় স্থানে ক্ষত চিহ্ন, চারটি ফুটো আর গলায় আঘাতের চিহ্ন মিলেছে ময়নাতদন্ত প্রতিবেদনে। সিনহার মৃত্যু হয়েছে অতিরিক্ত রক্তক্ষরণেই। প্রত্যক্ষদর্শীদের বিবরণও ছিলো ভিন্ন।

সিনহা হত্যাকাণ্ডে তাঁর বোনের দায়ের করা মামলার আইনজীবী মোহাম্মদ মোস্তফা জানান, পুলিশের করা সুরতহাল প্রতিবেদনের অসামঞ্জস্যতা এই ময়নাতদন্ত প্রতিবেদনের মাধ্যমে দূর হবে।

এরই মধ্যে ময়নাতদন্ত প্রতিবেদন হস্থান্তর করা হয়েছে তদন্তকারী সংস্থার কাছে।

শেয়ার করুন

0 Please Share a Your Opinion.: