Monday, 3 August 2020

কচুয়ায় ১৪ বছরের,জান্নাতুল ফেরদৌস মিশু নিখোঁজ হওয়ার পর মৃতদেহ খুঁজে পাওয়া গেছে ৷

চাঁদপুরের কচুয়ায় বড় হায়াতপুর হতে নিখোঁজ হওয়ার ৪৮ ঘন্টা পর বাসাবাড়িয়া গ্রামের একটি বিল হতে মিশুর লাশ উদ্ধার ৷
03/08/2020

কচুয়ায় ১৪ বছরের,জান্নাতুল ফেরদৌস মিশু নিখোঁজ হওয়ার পর মৃতদেহ খুঁজে পাওয়া গেছে ৷
আজ দুপুর সাড়ে ১১টায় কচুয়া উপজেলার ৯নং কড়ইয়া ইউনিয়নের বাসাবাড়িয়া গ্রামের একটি বিল থেকে মৃতদেহটি উদ্ধার করা হয় ৷
মৃত মিশু (১৪) বড় হয়ায়ৎপুর গ্রামের আবু হানিফের মেয়ে ৷ সে স্থানীয় চাঁদপুর এম এ খালেক মেমোরিয়াল হাই স্কুল অ্যান্ড কলেজের শিক্ষার্থী ৷
পারিবারিক ভাবে জানা যায়, মেয়েটি শুক্রবার দুপুরে বাড়ির পাশের রাস্তায় কুরবানির গরুর ঘাস কাটতে যায়" সেখান থেকে দীর্ঘ দুই /তিন ঘন্টায় মেয়েটি বাড়িতে না ফেরায় বাড়ির লোকজন তাকে খোঁজাখুঁজি শুরু করে ৷ শেষে ঘাস কাটার স্থলে গেলে সেখানে গিয়ে মেয়েটির ওড়না, কাস্তে এবং ওঁড়া দেখতে পায় কিন্তু মেয়েটিকে পাওয়া যায়নি ৷ পরে স্থানীয়রা ঘটনাস্থলে মেয়েটিকে অনেক খোঁজাখুঁজি করেও পায়নি ৷ এমনকি ফায়ার সার্ভিসের ডুবুরি দল এসেও ঘটনাস্থল পরিদর্শন করে মেয়েটির হদিস পায়নি ৷ এ ঘটনায় কচুয়া থানায় একটি অভিযোগ করা হয়েছে ৷

নিচে মৃত নিশুর বাবার ফেসবুক স্ট্যাটাস তুলে ধরা হলো ৷
আসলামুআলাইকুম আমার প্রিয় প্রবাসী ভাইয়েরা৷ আমার একমাত্র কলিজার ছোট্ট মেয়ে৷ গত শুক্রবার দুপুর থেকে নিখোঁজ৷ আজ তিন দিন পর তার৷ মৃতদেহ আমার বাড়ি থেকে ৫ মিনিট হাইটা গেলে অন্য বাড়ির পাশে গর্তে পাওয়া গেছে৷ আমার একমাত্র ছোট্ট মেয়ে কি দোষ করেছিলো৷ তারা আমার একমাত মেয়েকে মেরে ফেললো৷ মাএ ক্লাস নাইনে পড়ে আমি একজন প্রবাসী৷ আমি সারাজীবন থাকি প্রবাসে৷ আমার কোনো শক্রু ছিলনা৷ কিন্তু জানোয়ারগুলো আমার মেয়েকে রক্ষা দিলো না আমি বাংলাদেশের আইন কে সম্মান রেখে বলছি যে, আমার মেয়ে হত্যার বিচার চাই ৷৷
হে, আল্লাহ তোমার কাছে ও বিচার চাই

শেয়ার করুন

0 Please Share a Your Opinion.: