Wednesday, 23 December 2020

সিঙ্গাপুর মানেই মাসে ৫০ 'হাজার' কথাটা সত‍্য কিনা পড়ুন

আপনারা যারা বিদেশ আসতে চাচ্ছেন, আর আমরা যারা বিদেশে পরে আছি -

এই দুইটা গ্রুপের চিন্তা চেতনা সম্পূর্ন ভিন্ন, যারা বিদেশ আছি আমরা চিন্তা করি কেন আসলাম? 

কবে এই প্রবাস জীবন শেষ করে দেশে ফিরে যেতে পারব। কিন্তু যারা বিদেশে আসতে চাচ্ছেন তারা চিন্তা করে কবে যে যাব আর ডলার কামাবো এই চিন্তাই এদের মাথা নষ্ট করে দেয়।

আমাদের সমাজটাও কিছুটা উল্টাপাল্টা টাইপের সমাজ, আপনি ১ হাজার টাকা চেয়ে দেখেন ব্যবসার জন্য কেও দিবে না,কিন্তু লাখ টাকা নিয়ে এসে আপনার বাসায় বসে থাকবে যদি 

শুনে আপনি বিদেশ যাবেন বলে টাকা চাইছেন।
 

যিনি টাকা দিতে চাচ্ছেন তার কথাটা পরে বলছি, আপনি যে বিদেশে আশার চিন্তা করছেন তার বিষয়টা একটু বলি।

আপনি কেন বিদেশ আসার চিন্তা করছেন এটা একমাত্র আপনি এবং আপানর পরিবার ভাল বলতে পারবে,

কেননা নিশ্চয় আপনারা চিন্তা করে এই বিষয়ে সিদ্ধান্ত নিয়েছেন।
আপনি যদি পাশের বাড়ির কারো পাঠানো রেমিটেন্সের লোভে পরে বিদেশে পারি জমাতে চান তাহলে একটু খুজ নিয়ে দেখুন,

যে আজ লক্ষ টাকা পরিবারকে দিচ্ছে সে নিশ্চয় ১০/১২ বছর প্রবাসের গ্লানি টেনে আজকে এই লক্ষ টাকা দিচ্ছে।
হয়তো সে শুরু করেছিল ৫/৭ হাজার টাকা ইনকাম করে,
যে সময়টা আপনার কেহই আমলে নিচ্ছেন না। 

বাস্তবে এই সময়টার হিসাব করেই আপনাকে বিদেশে আসতে হবে,নতুবা বিদেশে কাজের ১ম দিনই আপনি খুজে পাবেন আপনার বিশাল স্বপ্ন শেষ হয়ে মাটির সাথে মিশে গেছে 

আর সেই স্বপ্ন ভঙ্গের কষ্ট কতটুকু সহ্য করতে পারবেন আপনিই ভাল বলতে পারবেন।

বর্তমানে সিঙ্গাপুর আসতে প্রায় ৭ লক্ষ টাকা লাগবে, আপনি যদি এই টাকাটা সহজে ব্যবস্থা করতে পারেন তাহলে দেশেই একটা ছোটখাট ব্যবসা শুরু করতে পারেন।

 কেননা বর্তমানে সিঙ্গাপুর সহ প্রায় সারা বিশ্বেই শ্রমিক লেভেলটা খুব সমস্যায় আছে।

শুরুতে হয়তো আপনি বেতন যা পাবেন তা থেকে সর্বোচ্চ ২০ হাজার টাকা সেইভ করতে পারবেন তাহলে আপনার প্রাথমিক অবস্থায় আসার সময় যে ৭ লক্ষ টাকা দিলেন তা তুলতেই আপনাকে 

৩৫ মাস অর্থাৎ ৩ বছর কাজ করতে হবে যা এক কথায় কুলুর বলদের মত খেটে গেলাম ৩ বছর পরে খুজে পাবেন নিজে এখনও শূন্যে আছেন।

এতদিন মাইনাসে অবস্থান করছিলেন তার উপর যদি কোম্পানি প্রতি বছর ভিসা নবায়নের জন্য টাকা নেই তাহলেতো আপনি ৪ বছরেও পারবেননা আপনার প্রাথমিক বিনিয়োগ তুলতে।

যদি টাকাটা লাভের উপর কর্জ করে আনতে হয় তাহলে আপনার পায়ে হাত দিয়ে বলব,
প্লিজ বিদেশে আসবেন না এটা আপনার জীবন শেষ করে দিবে।
যা রোজি করবেন সব আপনাকে সুদের লাভ দিতেই শেষ হয়ে যাবে, সুতরাং দেশে কিছু করুন।

গাধার মত পরিশ্রম আর কচ্চপের গতিতে বেতন, পাথরের বালিশ প্রিয়ার আলিঙ্গন আর রাস্তার পাশে ফকিরের বেশে খাওয়া,

একরুমে ১০/১৫ জন একসাথে থাকা যার পরিবেশ বস্তির চেয়েও খারাপ। এত কিছু মেনেও যদি আপনি সিঙ্গাপুরে আসতে চান তাহলে আপনাকে বলব,
আপনার সকল সার্টিফিকেট ড্রাইভিং লাইসেন্স এবং পাসপোর্ট অবশ্যয় মিল রেখে করবেন, নিজের নাম, বাবার নাম, মায়ের নাম এবং জন্ম তারিখ এই চারটা বিষয় মিল রেখে করলে 

আপনার সব কাগজ পত্র বিদেশে ব্যবহার করতে পারবেন নতুবা একটা ছোট্র ভুলের জন্য আপনার ১৬/১৭ বছরের শিক্ষা জীবনের অর্জন সনদগুলি ব্যাগে উই পুকা খাবে আপনি কোন কাজে লাগাতে পারবেন না।

সব কিছু ঠিক থাকলে আপনার মনে পরিশ্রম করার সাহস থাকলে তাহলে আপনার জন্য আমার শেষ কথা, সিঙ্গাপুর খুব সহজে অনেক ভাল করা যায় যদি আপনি করতে চান তবে 

তারজন্য আপনাকে কন্টিনিও লেখাপড়া চালিয়ে যেতে হবে তাহলেই আপনি ২/৩ বছর পর লক্ষ টাকা রোজি করতে পারবেন।
প্রথমে পরিবারকে অল্প কিছু টাকা দিয়ে আপনি একের পর এক টেকনিক্যাল কোর্স করতে থাকবেন তাহলে ২/৩ বছর পর আপনার সম বয়সি বন্ধুদের ১ বছরের ইনকাম আপনি ১ মাসেও করতে পারবেন,

সবশেষে আপনার জন্য শুভ কামনা থাকলো, সফল এবং আনন্দের হোক আপনার প্রবাস জীবন।

ক্রেডিট:-সিঙ্গাপুর প্রবাসী

শেয়ার করুন

0 Please Share a Your Opinion.: